করোনা অ-সুখ।

করোনা অ-সুখ।

করোনা অসুখ ক্রমশ:ই মানসিক অবসাদে পরিণত হচ্ছে। এই অসুখের সবচেয়ে বড় নিদান হলো-লকডাউন, সোশ্যাল ডিস্ট্যান্সিং আর মুখের উপর মাস্ক বা ছোট্ট একটা মুখোশ।

মানুষে মানুষে,পরিবারে পরিবারে,আত্মীয়-স্বজনে, পুত্র-,কন্যা,মাতা-পিতাদের মধ্যেসস্যাল ডিস্ট্যান্সিং বা লকডাউন ধীরে ধীরে বহু বছর ধরেই বেড়ে উঠছিল সমাজ-সমুদ্রের অভ্যন্তরে,,চোরাবালির মত । এই সময় সোশ্যাল ডিস্ট্যান্সিং বা সোশ্যাল লকডাউন চোরাবালির গন্ডি ছাড়িয়ে এক ভূমধ্য-সাগরীয় ডিস্ট্যান্সিংয়ে পরিণত হয়েছে।

এই ফাটল কি কখনো ভরাট হওয়া সম্ভব?

বলা হয়, “মানুষের মুখ হলো , মনের আয়না।”- কিন্তু সেই আয়নার উপর একটি আবরণ বা পর্দা ঢেকে দিলে, আয়নাটি স্বচ্ছতা হারায় বা অস্পষ্ট হয়ে যায় বৈকি । বর্তমান করোনা আবহে ,মাস্ক পরাটা অপরিহার্য ।ভবিষ্যতে এই মাস্ক হয়তো মানব সভ্যতার অচ্ছেদ্য এবং হয়ে দাঁড়াবে।

প্রত্যেক মানুষের মুখের উপর একটি অদৃশ্য মুখোশ থাকে । সেই অদৃশ্য মুখোশের উপর মাস্ক নামক আরো একটি মুখোশ, কাউকে চিনবার উপায় নেই আর।

লক ডাউন, সোশ্যাল ডিস্ট্যান্সিং আর মাস্ক-এই তিন দোসরের মিলনে, সমাজে করোনা অ-সুখ কি দৃঢ়বদ্ধ হয়ে গেল চির কালের মতো ?….

বন্দনা সাহা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *