ক্ষুধার রাজ্যে, পৃথিবী গদ্যময়!

মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী দিদি,

আজ আবার এলাম,,কিছু প্রশ্ন নিয়ে। ,,আপনার কাছে কোন অনুদান বা সহানুভূতির জন্য নয় ।

আপনার কাছে,,এসেছি। দাবি নিয়ে। হ্যাঁ । আপনার জনসমক্ষে দাঁড়িয়ে প্রতিশ্রুতির পালনের দাবি।দিদি, মনে পড়ে,,সেই দিনটির কথা??

আমরন অনশন করছিল একদল তরতাজা যুবক-যুব তী,,ওই যে,,ধর্মতলা,,প্রেস ক্লাবের ফুটপাথ জুড়ে।

যাদের মাথার ওপর খোলা আকাশে ছিল কাল বৈশাখীর দুর্যোগ, গাছ, ইলেকট্রিক খুঁটি পরে যাওয়ার আশঙ্কা!

যারা,আপনার কাছে ছেয়েছিল ন্যায়। তাদের অধিকার।

,২৬ দিন পেরোনোর পর,,যখন দিদি,,আপনি ও শিক্ষামন্ত্রী,,পার্থ চট্টোপাধ্যায়,,এসেছিলেন,,ওদের কাছে,,;

আপনি কথা দিয়েছিলেন,,আপনার সন্তান সম,ভাই ও বোন।,,,দিদি,,আজ তারা কিভাবে,,আছে,জানেন??

ওদের পরিবার কিভাবে,, বেঁচে আছে কিম্বা নেই??

লক ডাউনের কারনে,,ওই চাকরির আশায় থাকা,,শিক্ষিত কি ভাবে ,,জুঝছে??..

দিদি,,ওরা তো আপনার সব কথা মেনে নিয়েছিল!

আপনার কথা মতই ওরা,,আমরন অনশন তুলেনিয়েছিল,,,। এবং এই ভরসা টুকু পেয়েই ওরা বেঁচে ছিল,,বা আজও বেচে আছে। কিন্তু ,,আপনি যদি,,একটু ,,ওদের খোঁজ খবর না রাখেন?..হতাশা আর গ্লানি,,বেকারত্ব আর সমাজের গঞ্জনা, দ্রব্য মুল্য,,যখন চিতার আগুন,,,।তখন ,একজন শিক্ষিত , যোগ্য অথচ কেমন যুবক, যুবতীর,,মানসিক অবস্থা কি আপনাকে ,,আমায় বলে দিতে হবে??

,,,দিদি,,এস,এস,সি,,আন্দোলন,,এর সেই পাঁচ নেতৃত্বদানকারী দের কথাই বলছি।

আমরা মুহূর্ত,,,বাংলা ও বাঙালির প্রতি মুহুর্তের সংগ্রামী , সাথী ,,তাই আমাদের আপনার কাছে,,এই টুকুই দাবি,,,ওদের অবিলম্বে নিয়োগ পত্র দিন,,আর ওদের পরিবার,, এবং পরিবারের সদস্যের বাঁচতে দিন,,,।

না হলে,,এবার ওদের হয়ে,,আবার রাজপথ স্তব্ধ করে দেবে,,গোটা বাংলার সব শিক্ষিত যুব।।

আর নাহলে,,,চির অবজ্ঞায়,,,নীরব ধিক্কারে,,মুছে দেব,,নিজেদের অস্তিত্ব,,,ওই ধর্মতলার,,,প্রেস ক্লাবের রাজপথের উপর,,মনুমেন্ট বা শহীদ মিনারের নামকরন কে সার্থক করে দেব,,তাজা রক্তে,আত্মাহুতি দিয়ে।।,, জয়েদেব দাস,

সম্পাদক,

মুহূর্ত ।

Joy Dev Das

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *